গত মার্চ মাস থেকে পৃথিবীর অধিকাংশ দেশ করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউনের মধ্যে আছে।বন্ধ আছে সকল প্রকার অর্থনৈতিক কর্মকান্ড যেমনঃকল কারখানা, শিল্পপ্রতিষ্ঠান,শপিংমল, রেস্তরা,ভ্রমণ ইত্যাদি যা অর্থনীতির সাথে জড়িত। মাসের পর মাস বন্ধ রাখতে হচ্ছে কাজকর্ম।

বিশ্ব অর্থনীতি অনেক বার মন্দার কবলে পড়েছে।কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এমন আর্থিক সংকট,অতীতে কখনও লক্ষ্য করা যায়নি।মহামারী কারণে সৃষ্ট এই মন্দা ১৯৩০ সালের মহামন্দার চেয়েও ভয়াবহ। ১৯৩০ মহামন্দা যা সেয়ার ধসের কারণে সৃষ্ট হয়ে ছিলো। অন্য দিকে, ২০২০ যে মহামন্দার সৃষ্টি হচ্ছে তা করোনাভাইরাসের কারণে।

গত তিন -চার মাসে কয়েক বিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতি হয়েছে সারা বিশ্বে।তবে এখনও সঠিক বলা যাচ্ছে না কি পরিমাণ ক্ষতি হতে পারে সারা বিশ্বে। এখনও সময় আসেনি পরিসংখ্যান করার।

একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে আমেরিকায় প্রতিদিন গড়ে ৩৫০০০০ হাজার মানুষ বেকার ভাতার জন্য আবেদন করছে।
এ দ্বারা বোঝা যাচ্ছে যে আমেরিকায় কি পরিমাণে মানুষ মহামারীর জন্য বেকার হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে করোনা মহামারীর জন্য কয়েক কোটি মানুষ তার চাকরি হারাবে সারা বিশ্বে।

অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মী ছাঁটাই করতে শুরু করেছে। অনেক নতুন শুরু করা প্রতিষ্ঠান তারা ধ্বংসের মুখে।
এর ফলে নতুন উদ্যোক্তাদের মাঝে আতঙ্ক কাজ করছে। এর ফলে সারা বিশ্বের অর্থনীতিতে ক্যান্সারের মতো রোগ ধরা পড়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে